পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার উপায়-সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন | Rahul IT BD

পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার উপায়-সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন

প্রিয় পাঠক আজকের এই আর্টিকেলে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার উপায়, শীতে পা ফাটা দূর করার এবং পা ফাটা দূর করার ক্রিম ইত্যাদি এসব বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে। আপনারা যারা এ ধরনের সমস্যা নিয়ে ভুগছেন তারা এই আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন।
পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার উপায়
তাই এই সমস্যার সমাধান পেতে যারা আগ্রহী তাদেরকে আজকেরে আর্টিকেলে স্বাগতম।

ভূমিকা

প্রিয় বন্ধুগণ আমাদের অনেকেরই পায়ের গোড়ালিতে বিভিন্ন কারণে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে এবং আবহাওয়া কত কারণে ও ফাটা দেখা যায়। অযত্ন অবহেলার কারণেও এটা হয়ে থাকে আবার জেনেটিক কারণে এটা হয়ে থাকে।

 আপনারা এই সমস্যার সমাধান পেতে অনেকেই ইন্টারনেটে সার্চ করে থাকেন যে কিভাবে এর থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। 

আজকের এই পোস্টটি সে সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য প্রদান করেছে। তাই আপনাদের কাছে আজকের এই আর্টিকেলটি অনেক বেশি ইনফরমেটিভ হবে। সুতরাং প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়তে থাকুন।

পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার উপায়-সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন

বিভিন্ন বয়সের মানুষের মধ্যে পায়ের গোড়ালি ফাটা দেখা যায় পুরুষ মানুষের মাঝেও যেমন দেখা যায় তেমনি মেয়ে মানুষের মধ্যেও পায়ের গোড়ালি ফাটা অনেক দেখতে পাওয়া যায়। বিশেষ করে শীতকালে সবথেকে বেশি গরলে ফাটা আমাদের চোখে পড়ে বা এই সমস্যাটাই মানুষের হয়ে থাকে। 

তবে পুরুষ মানুষের থেকে মেয়ে মানুষের এই সমস্যাটা বা পায়ের গোড়ালি ফাটা বেশি হয়ে থাকে এর বিভিন্ন কারণ রয়েছে তার মধ্যে একটি কারণ হচ্ছে স্কিনের কন্ডিশন, কারণ মেয়েদের স্ক্রিন থাকে নরম যার কারণে পানিসূন্যতার ফলে পায়ের গোড়ালি মেয়েদের বেশি ফাটতে দেখা যায়। 

পায়ের ফাটা অনেক গভীর হলে অনেক ব্যথা অনুভব হয় হাঁটাহাঁটি করলে ব্যথা অনুভব হতে পারে এবং ফাটার মধ্যে কোন রকম ব্যাকটেরিয়ার ঢুকলে বা নোংরা বা জীবাণু ঢুকলে আরো বড় ধরনের সমস্যা তৈরি হতে পারে। 

আসলে এর মূল কারণ হলো আমরা পায়ের প্রতি বা পায়ের গোড়ালির প্রতি আমরা মোটেও যত্নবান নই যত্ন নিই না আমরা সাধারণত মুখের প্রতি যতটা যত্ন নিই সেক্ষেত্রে পায়ের যত্ন ওভাবে নেওয়া হয় না। আমরা মুখে বিভিন্ন ধরনের ক্রিম ইউজ করি বিভিন্ন ধরনের লোশন ইউজ করি। 

মুখের সৌন্দর্য এবং ত্বক ভালো রাখার জন্য কিন্তু পায়ের ক্ষেত্রে আমরা একেবারেই যত্নশীল নয়। আমরা যদি পায়ের ক্ষেত্রেও যত্নশীল হতাম যেভাবে আমরা মুখের যত্ন নিয়ে থাকি তাহলে আমাদের পায়ের গোড়ালিতে এ ধরনের সমস্যা কখনো দেখা দিত না।

শীতে পা ফাটা দূর করার উপায়-জানতে এই পোস্টটি পড়ুন

শীতকালে সবথেকে বেশি পা ফাটা সমস্যাটা তৈরি হয় কারন শীতকালে আমাদের শরীরে পানির পরিমাণটা কমে আসে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় আমাদের পা যার কারণে শীতকালে পা ফাটা বেশি দেখা যায়। আমরা যদি ভালোভাবে স্কিন কেয়ার নিতে পারি তাহলে পা ফাটা সমস্যা আমরা সহজেই দূর করতে পারি। 

পা ফাটা এই সমস্যাটা অনেকের জেনেটিক কারণে হয়ে থাকে জেনেটিক কারণ বলতে বংশগত ভাবে এটা অনেক সময় দেখা যায়। আবার শীতকালের ওয়েদারটা যেহেতু খুবই সুস্থ থাকে আমাদের পায়ের পানির পরিমাণটা কমে যায় যার কারণে এটা খুব খারাপ ভাবে দেখা যায়। 

এক্ষেত্রে আপনাকে পায়ের অনেক যত্ন নিতে হবে পায়ের যত্ন নিলে ভালো হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তবে যত্ন নেয়ার পরেও যদি দেখেন যে পায়ের ফাটা বা কতদূর হচ্ছে না সে ক্ষেত্রে আপনি অবশ্যই একজন স্কিন কেয়ার বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে চিকিৎসা নিতে পারেন তাতে আপনার সমস্যার সমাধান হবে ইনশাল্লাহ। 

আপনি নিজে নিজে ভেসলিন ব্যবহার করতে পারেন ভেসলিনের মধ্যে যদি কয়েক ফোটা গ্লিসারিন দিয়ে মিক্স করে বা হাতে তালুতে নিয়ে ভালোভাবে মিক্স করে পায়ের গোড়ালিতে দেন মাঝে মাঝে তাহলে দেখবেন যে পা ফাটা আপনার ধীরে ধীরে ভালো হয়ে গেছে। 

এক্ষেত্রে আপনি এই ভ্যাসলিন এবং গ্লিসারিনের মিশ্রণটি দিনে দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করতে পারেন সকালে একবার ব্যবহার করেন গোসলের পর পর একবার ব্যবহার করতে পারেন আবার রাতে ঘুমানোর আগে ব্যবহার করতে পারেন। 

এভাবে নিয়মিত কয়েকদিন ব্যবহার করতে পারলে আপনার দেখবেন যে পা ফাটা শীতকালের দিকে এভাবে আর হবেনা। অনেকে যখন এ ধরনের সমস্যা কোনভাবেই ভালো হয় না বিভিন্ন পদ্ধতি এপ্লাই করার পরে তখন তারা কোন কিছু দিয়ে বা কোন যন্ত্র পাতি দিয়ে তার ভিতরে ঢুকিয়ে থাকে। 

সেগুলোকে সরানোর চেষ্টা করে কাটার চেষ্টা করে চামড়া তোলার চেষ্টা করে যেটা কিন্তু স্কিনের জন্য খুবই খারাপ তাতে স্ক্রিনে বড় ধরনের অন্য কোন সমস্যা তৈরি হতে পারে এবং সমস্যাটা রয়েছে সেটা আরো গভীরভাবে বেড়ে যেতে পারে, তাই কোন ভাবেই কোন যন্ত্রপাতি দিয়ে ব্যবহার করা উচিত হবে না।

পা ফাটার ঘরোয়া উপায় এবং চিকিৎসা-জেনে নেওয়া যাক

পা ফাটা দূর করতে হলে আপনাকে প্রথমে জানতে হবে যে কেন বা কি কারনে বা কিসের জন্য আপনার পা ফাটে আপনি যদি এই কারণগুলো নিজে উপলব্ধি করতে পারেন তাহলেই আপনি এর সঠিক ব্যবস্থাও নিতে পারবেন। 

অনেক সময় আমাদের শরীরের ভিটামিন ই প্রচুর পরিমাণে ঘাটতি থাকলে প্রতিনিয়ত বা নিয়মিতভাবে পায়ের ফাটা সমস্যা সমাধান হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে কারণ এটা হতেই থাকে এক্ষেত্রে আপনাকে ভিটামিন ই যে সমস্ত খাবারগুলোতে বেশি রয়েছে সে সমস্ত খাবার গুলো বেশি বেশি গ্রহণ করা উচিত। 

আমাদের শরীরকে সুস্থ রাখার জন্য বা ভালো রাখার জন্য এবং শক্তিশালী করে তোলার জন্য মজবুত করার জন্য ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম এই দুইটা উপাদান খুবই জরুরী কিন্তু এই দুইটা উপাদান আমাদের শরীরে যদি খুবই কম থাকে বা ঘাটতি দেখা যায়। 

সেক্ষেত্রে অবশ্যই আমাদের পায়ের ফাটার মতো সমস্যা হতে পারে বা এর থেকেও আরো বড় ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে তাই যে সমস্ত খাবারগুলোতে ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম থাকে প্রচুর সে সমস্ত খাবার গুলো আমাদের নিয়মিত গ্রহণ করা উচিত। 

এরপর আপনার যদি সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে আপনাকে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে সমাধান করতে হবে।

পা ফাটা থেকে মুক্তির উপায় এবং পা ফাটা দূর করার ক্রিম-জেনে নিন

আমাদের শরীরের সমস্ত ওজন পায়ের উপরে গিয়ে পড়ে বিশেষ করে পায়ের গোড়ালির উপরে শরীরের পুরো প্রেসারটা পরে যার কারণে পানির সল্পতা দেখা দেয় এবং পা ফাটা দেখা দিতে থাকে। আমরা বিভিন্ন প্রয়োজনে বিভিন্ন কারণে আমাদেরকে হাটাহাটি করতে হয় এই হাঁটা হাঁটির পরে পুরো শরীরের ভর আমাদের পায়ের গোড়ালের উপরে যে পড়ছে। 

তাহলে বোঝেন পায়ের গোড়ালির যত্ন নেওয়াটা কতটা উচিত অথচ আমরা মুখের যত্ন নেওয়ার জন্য প্রতিদিন আমরা বিভিন্ন ধরনের ক্রিম লোশন এছাড়াও আরো নামিদামি ব্রান্ডের কসমেটিক এর পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করি। 

যা ব্যবহারের ফলে মুখের ত্বক সুন্দর থাকে তারপরও বিভিন্ন ভিটামিন মুখে ইউজ করে থাকি এরপরেও প্রাকৃতিক বিভিন্ন প্রোডাক্ট রয়েছে যেগুলো আমরা এপ্লাই করে থাকি। অথচ পায়ের ক্ষেত্রে আমরা একেবারে অসচেতন এবং অবহেলা করে, যার কারণে আমাদের এই সমস্যাটা দেখা যায়। 

পায়ের ফাটা বা গোড়ালি ফাটা যদি সামান্য হয় তাহলে ভেসলিন দিয়ে বা গ্লিসারিন দিয়ে সেটার সমাধান করা যায় কিন্তু যখন পায়ের ফাটা অনেক বড় বা বেশি পরিমাণ গভীর তখন অবশ্যই আপনাকে অন্য ধরনের ক্রিম ব্যবহার করতে হবে যা ওষুধের দোকানে পাওয়া যায় অথবা ডাক্তারের পরামর্শ নিয়েও আপনি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন এতে আপনি ভালো ফলাফল পাবেন আশা করা যায়।

পরিশেষে

প্রিয় বন্ধুগণ আপনারা যারা এই আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছেন আমি আশা করি আপনারা পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার উপায় এবং কি কারণে পায়ের গোড়ালি ফাটে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পেয়েছেন এবং উপকৃত হয়েছেন। 

এ ধরনের আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করতে থাকুন। আবার দেখা হবে নতুন কোন আর্টিকেল নিয়ে সে পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকুন। সবশেষে আপনাদের সকলের মঙ্গল কামনা করে আজকের মত এখানেই শেষ করছি।ধন্যবাদ

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url